মানবাধিকার নিয়ে গঠনমূলক সুপারিশ বেশি, সমালোচনা কানাডা ও স্লোভাকিয়ার

লেখক:
প্রকাশ: ৪ সপ্তাহ আগে

জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক সংস্থার চতুর্থ ইউনিভার্সাল পিরিয়ডিক রিভিউ (ইউপিআর) বা সর্বজনীন নিয়মিত পর্যালোচনায় ১১১টি দেশ বাংলাদেশকে নিয়ে মন্তব্য বা সুপারিশ করেছে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেছেন, এর মধ্যে ৯০ ভাগের মতো দেশ বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতির অগ্রগতির বিষয়ে প্রশংসা করে গঠনমূলক সুপারিশ করেছে।

আজ সোমবার সন্ধ্যায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত ভার্চুয়্যাল সংবাদ সম্মেলনে ইউপিআরে বাংলাদেশের পরিস্থিতি নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন আইনমন্ত্রী। তিনি সুইজারল্যান্ডের জেনেভা শহরে অনুষ্ঠিত ইউপিআরে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিয়েছেন। সেখানে বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার পর তিনি সংবাদ সম্মেলনে যোগ দেন।

সংবাদ সম্মেলনে আনিসুল হক বলেন, ‘মানবাধিকার রক্ষায় আমাদের উদ্যোগকে এগিয়ে নিতে রিভিউয়ে (পর্যালোচনা) অংশগ্রহণকারী দেশগুলো বেশ কিছু গঠনমূলক সুপারিশ করেছে। তবে কানাডা ও স্লোভাকিয়া বাংলাদেশের মানবাধিকার নিয়ে কড়া সমালোচনা করেছে। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও বেলজিয়াম—এরা সবাই আমাদের অগ্রগতির প্রশংসা করেছে। কিছু কিছু ক্ষেত্র যেমন—নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন করেছে। এদের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র ও বেলজিয়াম ছিল। তারা শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের কথা বলেছে। সে ক্ষেত্রে আমি নির্বাচনের ব্যাপারে অত্যন্ত স্পষ্টভাবে আমাদের অবস্থান জানিয়েছি।’

বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে কিছু রাষ্ট্র থেকে পাওয়া সুপারিশের বিষয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা যে পরামর্শ পেয়েছি, সেগুলো পরীক্ষা করব। আমরা সুপারিশগুলোর বিষয়ে আমাদের মতামত জানাব। আগামী পরশু (বুধবার) পুরো সুপারিশগুলো আমরা পাব। সুপারিশ পেলে আমরা চিন্তা করব, কোনটা কোনটা রাখব, কোনটা রাখব না। সুপারিশগুলো নিয়ে আমরা অংশীজনদের সঙ্গে কাজ করব এবং ফেব্রুয়ারিতে জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদে (অগ্রগতি প্রতিবেদন) জমা দেব।’